May 10, 2018 A- A A+

গ্রীন লাইনের সাথে লঞ্চের সংঘর্ষে আহত ৮

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকার বুড়িগঙ্গা নদীতে বরিশালগামী এমভি গ্রীন লাইন-২ জাহাজের সাথে বিপরীতমুখী শরীয়তপুর থেকে ঢাকাগামী এমভি মীর সাব্বিরের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে গ্রীন লাইনের ব্যাপক ক্ষতিসহ ৮ যাত্রী আহত হয়। দুর্ঘটনার পর গ্রীন লাইনের যাত্রা বাতিল করে ঢাকার লালকুটির ঘাটে যাত্রীদের নামিয়ে টিকেটের টাকা ফেরত দেয়া হয়। বুড়িগঙ্গা সেতুর আগে বুড়িগঙ্গা নদীতে এই দুর্ঘটনার জন্য এমভি মীর সাব্বির লঞ্চকে দায়ী করেছেন গ্রীন লাইনের যাত্রীসহ সংশ্লিস্টরা।
গ্রীন লাইনের যাত্রী বরিশাল নগরীর ব্যবসায়ী হুমায়ুন কবির জানান, ঢাকার লালকুটির ঘাট থেকে ৯ মে বৃহস্পতিবার সকালে ৭শ’আসন বিশিস্ট গ্রীন লাইন ২ শতাধিক যাত্রী নিয়ে বরিশালের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে। বুড়িগঙ্গা নদীর বুড়িগঙ্গা সেতু অতিক্রমের আগেই দ্রুতগতির গ্রীন লাইন হঠাৎ গতি কমিয়ে দেয়। এ সময় দেখতে পান শরীয়তপুর থেকে ঢাকাগামী যাত্রীবাহী লঞ্চ এমভি মীর সাব্বির এমভি গ্রীন লাইন-২ এর বামপাশের মাঝ বরাবর সজোরে আঘাত করে। এতে বিকট শব্দে গ্রীন লাইনে জোড়ে ঝাঁকি লাগে। মুহূর্তের মধ্যে যাত্রীদের মধ্যে চিৎকার চেচামেচি শুরু হয়। সংঘর্ষে গ্রীন লাইনের নীচ তলার বামপাশের অন্তত ৮ জন যাত্রী রক্তাত্ব জখম হয়। ভেঙ্গে যায় ৪/৫টি আসন।
গ্রীন লাইনের নীচ তলার প্রত্যক্ষদর্শী যাত্রী মো. রাজু জানান, শরীয়তপুর থেকে ঢাকাগামী ওই লঞ্চটি প্রথমে ডান পাশ থেকে অতিক্রম করতে চাইলেও শেষ সময়ে বামপাশ থেকে অতিক্রম করতে থাকে। এ সময় গ্রীন লাইনের গতি হঠাৎ কমিয়ে দিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি। যাত্রী আবুল হোসেন জানান, কিন্তু দুর্ঘটনার পর গ্রীন লাইন কর্তৃপক্ষ বিকল্প কোন ব্যবস্থা না করে যাত্রা বাতিল করে লালকুটির ঘাটে ফিরে দিয়ে যাত্রীদের টিকেটের টাকা ফেরৎ দিয়ে দেয়। এতে তিনিসহ অনেক যাত্রীই বিপদে পড়েন। গ্রীন লাইন সার্ভিসের বরিশাল অফিসের ইনচার্জ শামসুল আরেফিন লিপটন বলেন, সম্পূর্ন শীতাতপ নিয়ন্ত্রত গ্রীন লাইনের বামপাশের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজটি মেরামত এবং সার্ভে ছাড়া রুটে পাঠানোর অযোগ্য হয়ে পড়েছে। কোম্পানীর নিজস্ব ডকইয়ার্ডে গ্রীন লাইন-৩ নামে আরেকটি জাহাজের সংস্কার কাজ চলছে। বিকল্প কোন জাহাজ না থাকায় গ্রীন লাইনের ওই জাহাজের যাত্রা বাতিল করে যাত্রীদের টিকেটের টাকা ফেরত দেয়া হয়েছে। রুটে চলাচল করা একমাত্র জাহাজটি দুর্ঘটনাকবলিত হওয়ায় বৃহস্পতি এবং শুক্রবার বরিশাল-ঢাকা রুটে গ্রীন লাইনের সকল যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। গ্রীন লাইন-৩ জাহাজ সংস্কার শেষে আগামী শনিবার থেকে যথারীতি বরিশাল-ঢাকা নৌ রুটে ফের গ্রীন লাইন সার্ভিস যাত্রী পরিবহন শুরু করবে। দুর্ঘটনাকবলিত গ্রীন লাইন-২ মেরামত শেষে এক সপ্তাহের মধ্যে ফের রুটে যুক্ত হতে পারবে বলে জানান তিনি। ঢাকা নৌ পুলিশ সুপার একেএম এহসানউল্লাহ জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ক্ষতিগ্রস্থ জাহাজ পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail